মেনু নির্বাচন করুন

মুড়াপাড়া জমিদার বাড়ি

নাটোর স্টেটের ট্রেজারার এবং মুড়াপাড়া রাজ পরিবারের প্রতিষ্ঠাতা রামরতন ব্যানার্জি ১৮৮৯ সালে ১৬.৫০ একর জায়গার উপর রাজবাড়িটির নির্মাণ কাজ শুরু করেন এবং তাঁর পুত্র বিজয় ব্যানার্জি ১৮৯৯ সালে নির্মাণ কাজ সমাপ্ত করেন। জমিদার বাড়িটি মুর্শিদাবাদের হাজারদুয়ারী প্রাসাদের অনুকরণে নির্মিত। ৯০টির অধিক কক্ষবিশিষ্ট দ্বিতল বিশাল এ প্রাসাদের সম্মুখে রয়েছে মাঠ, সান বাধানো ঘাটের পুকুর, আম বাগান, মন্দির, মঠ ও সারি সারি দীর্ঘ পাম গাছ। প্রাসাদে রয়েছে অতিথিশালা, কাচারি ঘর, নাচ ঘর, পূজা ঘর, আস্তাবলসহ অনেক কক্ষ। পিছন দিকে উঠান, বাগান ও পুকুর রয়েছে। ১৯৪৭ এ দেশ বিভাগের পর জমিদারগণ এই বাড়ি ছেড়ে কলকাতায় চলে যান। পরিত্যক্ত ভবনটিতে তৎকালীন সরকার শিশু অপরাধী সংশোধন কেন্দ্র স্থাপন করেন, পরবর্তীতে এটি অন্যত্র স্থানান্তরিত হয়। ১৯৬৬ সালে মুড়াপাড়ার বিশিষ্ট শিল্পপতি ও ব্যবসায়ী হাজী গোলবক্স ভূইয়া বাড়িটিতে ‘‘হাজী গোলবক্স ভূইয়া কলেজ’’ চালু করেন। ১৯৭১ সালে দেশ স্বাধীন হওয়ার পর কলেজটির নাম পরিবর্তন করে মুড়াপাড়া ডিগ্রি কলেজ করা হয়। বর্তমানে এটি ‘‘মুড়াপাড়া বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ’’ নামে পরিচিত।